বিসিকের লবণ আছে, মিল মালিক সমিতি বলছে সংকট

দেশের লবণ মিল মালিক সমিতি বলছে লবণের সংকট। কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে বিসিকের দাবি লবণের কোনো সংকট নেই। তবে উল্টো কথা বলছেন, লবণ মিল মালিক সমিতি।

বিসিকের তথ্য মতে, চাহিদার তুলনায় লবণের অতিরিক্ত মজুদ আছে ১ লাখ ৫০ হাজার মেট্রিক টনের বেশি।আর লবণ মিল মালিক সমিতি বলছে, কোরবানির ঈদেই দেখা দেবে সংকট।

তবে,বাজার বিশ্লেষকরা বলছেন, অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে গুজব প্রতিরোধে নিতে হবে কঠোর ব্যবস্থা।

প্রতিবছর কোরবানিতে কাঁচা চামড়া সংরক্ষণে প্রয়োজন হয় অতিরিক্ত লবণের। তবে তার প্রকৃত পরিমাণ কতো, তা নিয়ে রয়েছে মতভেদ। লবণ মিল মালিক সমিতির হিসেব মতে, শুধু কোরবানিতেই প্রয়োজন আড়াই লাখ টন লবণ। তবে বিসিকের দাবি মাত্র ৮১ হাজার টনেই সম্ভব কাঁচা চামড়া সংরক্ষণ ও প্রক্রিয়াজাত করণ।

বিসিক চেয়ারম্যান মো. মোশতাক হাসান বলেন, গত বছর ৮১ হাজার টন লবণের প্রয়োজন হয়েছিল। নারায়ণগঞ্জ লবণ মিল মালিক সভাপতি পরিতোষ কান্তি সাহা বলেন, আড়াই লাখ মাল শুধু কোরবানি ঈদেই লাগে।

শুধু তাই নয়, বিসিকের মতে সারাবছরের লবণের চাহিদা মিটিয়েও লবণের অতিরিক্ত মজুদ আছে প্রায় ১ লাখ ৫০ হাজার মেট্রিক টন। বিসিকের পরিসংখ্যানের সাথে দ্বিমত পোষণ করে ব্যবসায়ীরা বলছেন, চাহিদার তুলনায় মজুদ কম থাকায় এবারো দেখা দিতে পারে লবণ নৈরাজ্য।

নারায়ণগঞ্জ লবণ মিল মালিক সভাপতি পরিতোষ কান্তি সাহা আরো বলেন, বিসিকের কথা কখনই ঠিক পেলাম না, তারা আন্দাজে কথা বলেন।
আপরদিকে বাজার বিশ্লেষকরা বলছেন, ঈদের আগেই গুজব প্রতিরোধে প্রয়োজনে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে সরকারকে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here