টিসিবির পেঁয়াজ চাহিদার তুলনায় নগন্য

টিসিবির পেঁয়াজবাহী গাড়ির সামনে দীর্ঘ প্রতীক্ষায় নারী-পুরুষ
টিসিবির পেঁয়াজবাহী গাড়ির সামনে দীর্ঘ প্রতীক্ষায় নারী-পুরুষ
 টিসিবির পেঁয়াজ চাহিদার তুলনায় কম সরবরাহ দিচ্ছে।

বাজারে পেঁয়াজের দাম নাগালের বাইরে চলে যাওয়ায় ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) খোলা ট্রাকে বিক্রি পেঁয়াজেই ভরসা অনেকের। তবে টিসিবির পেঁয়াজ অল্প সময়েই শেষ হয়ে যায় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বর্তমানে বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে এক শত বিশ থেকে ত্রিশ টাকা ধরে। এ দাম নিম্ন ও মধ্যবিত্তের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে হওয়ায় টিসিবির ন্যায্য মূল্যের পেঁয়াজ কিনতে আগ্রহী হচ্ছেন তারা।

সোমবার দুপুরে রাজধানীর আজিমপুর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে টিসিবির পেঁয়াজবাহী গাড়ির সামনে দীর্ঘ প্রতীক্ষায় দেখা যায় কয়েক শত নারী-পুরুষকে। যদিও খুব কম সময়ে পেঁয়াজ শেষ হয়ে যাওয়ায় অনেককেই ফিরতে হয়েছে খালি হাতে।

টিসিবির চট্টগ্রাম আঞ্চলিক অফিস প্রধান জামাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘আমরা নগরীর দশটি স্পটে দশটি ট্রাকে করে পেঁয়াজ বিক্রি অব্যাহত রেখেছি। প্রতি ট্রাকে এক (১) টন করে দৈনিক দশটন পেঁয়াজ বিক্রি করছি।’

কোন কোন স্পটে টিসিবির ট্রাক পেঁয়াজ বিক্রি করে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘কোতোয়ালী, বায়েজিদ, পাহাড়তলী,হালিশহর, বন্দর থানা ও দামপাড়া পুলিশ লাইন, প্রেসক্লাব, চকবাজার, ইপিজেড, ডাবলমুরিং-এ বিক্রি করা হচ্ছে। ট্রাকগুলো থানার আশেপাশে দাঁড়াচ্ছে।’

টিসিবির তথ্য অনুযায়ী নগরীর নির্ধারিত স্থানগুলো ঘুরে দেখা যায় ভিন্ন চিত্র। স্থানগুলোর আশেপাশের লোকজন দাবি করেন, টিসিবির ট্রাক পেঁয়াজ পেঁয়াজ বিক্রি করার জন্য অসার সাথে সাথে শেষ হয়ে যায়।

ক্রেতারা জানান, ‘শুরুর দিকে দুইদিন ন্যায্যমূল্যে পেঁয়াজ বিক্রির ট্রাক এসেছিলো। এরপর ট্রাক আর নির্দিষ্ট স্থানে আসেনাই। তাই আমরা ৪৫ টাকায় পেঁয়াজ কিনতে না পেরে বাজার থেকে ২০০ টাকায় কিনছি।’

ডাবলমুরিং এলাকায় গিয়ে টিসিবির কোন গাড়ি দেখতে পাওয়া যায়নি। দেওয়ান হাট মোড়ে লিয়াকত নামের এক দোকানি বলেন, গত শনিবার (৩০ নভেম্বর, ২০১৯) একটা ট্রাক পেঁয়াজ বিক্রি করেছিলো। এর আগে বা পরে এ ট্রাক আর দেখিনি।

টিসিবির নির্ধারিত পেঁয়াজ বিক্রির স্থান ঘুরে শুধুমাত্র একটি ট্রাক দেখা যায় কোতোয়ালী থানার পাশে। ট্রাক থেকে পেঁয়াজ কেনার উদ্দেশ্যে লাইন ধরে দাঁড়িয়েছে ষাট-সত্তোর জন লোক। যারা পেঁয়াজ কিনছেন তারা এক ঘণ্টার অধিক সময় লাইনে দাঁড়িয়ে পেঁয়াজ কিনতে সক্ষম হয়েছেন বলে জানান। ট্রাকটি টিসিবির নিবন্ধিত ডিলার মেসার্স এ এস এন্টারপ্রাইজের। ট্রাকের সামনে ব্যানার লাগানো। ব্যানারে লেখা আছে প্রতি কেজি পেঁয়াজের দাম ৪৫ টাকা। কিন্তু পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকায়।

নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে পাঁচ (৫) টাকা বেশি মূল্যে বিক্রি করলেও ক্রেতার কমতি নেই। একজন ক্রেতাকে এ নিয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, বাজারের চেয়ে অনেক কমে পাচ্ছি। তাই পাঁচ টাকা বেশি নিচ্ছে কেন সে প্রশ্ন না করে এক কেজি পেঁয়াজ কিনে নিয়েছি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here