পুরস্কার পাবেন! প্রতিদিন ছ’ঘন্টার বেশি ঘুমিয়ে খাকুন

একপ্রস্থ ঘুম কর্মীদের কাজে মন বসাতে সাহায্য করবে
একপ্রস্থ ঘুম কর্মীদের কাজে মন বসাতে সাহায্য করবে

প্রতিদিন ছ’ঘন্টার বেশি ঘুমিয়ে খাকুন তাহলে পুরস্কার পাবেন! আজব নিয়ম, অফিসে ঘুম, তাও আবার বোনাসসহ! এটা পৃথিবীর কোনো দেশ না হয়ত রূপকথার রাজ্য হতে পারে, তাই তো মনে হচ্ছে? কিন্তু না এটা কোনো রূপকথার দেশের গল্প নয়।
ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের এক প্রতিবেদনের জানা যায়, অসুস্থতা ও অনুপস্থিতির জন্য জাপানের বিভিন্ন সংস্থার বার্ষিক ১৩৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ক্ষতি হচ্ছে শুধু ঘুমের ঘাটতির কারণে। এই সমস্ত সংকটের কথা মাথায় রেখেই অভিনব পন্থা চালু করেছে একটি ওয়েডিং প্ল্যানার (বিয়ে আয়োজক সংস্থা)। প্রতিদিন ছ’ঘন্টার বেশি ঘুমালেই কর্মীকে পুরস্কৃত করছে সেই সংস্থা।

অফিসে ঘুম
অফিসে ঘুম

কাজুহিকো মোরিয়ামা, সংস্থার সিইও এই প্রসঙ্গে ব্লুমবার্গকে জানিয়েছেন, প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের যত্ন নিতেই হবে। নইলে সারা দেশ দুর্বল হয়ে পড়বে।

সব দেশে তো বোনাস সিস্টেম নাই ঘুমানোর জন্য, তবে সুস্থ থাকতে নিজের দায়িত্বেই আট ঘণ্টা ঘুমানোর অভ্যাস করুন।

 অফিসে কাজের ফাঁকে ঘুম
অফিসে কাজের ফাঁকে ঘুম     

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল স্লিপ ফাউন্ডেশন এর সমীক্ষার তথ্যের ভিত্তিতে জানা যায়, ২৯ শতাংশ কর্মী অফিসে ঘুম-ঘুম বোধ করেন। বসের চোখ ফাঁকি দিয়ে ছোটখাটো একটা ঘুম দিয়ে নেন—এমন লোকও নেহাত কম নয়! দ্য আমেরিকান পাবলিক হেলথ অ্যাসোসিয়েশনের গবেষক জেনিফার টারগিস আরও অবাক করা তথ্য দিয়েছেন। তিনটি অফিসের ১ হাজার ১৩৯ জন কর্মীকে নিয়ে একটি জরিপ করেছিলেন তারা। এতে প্রতি ১০০ জনে ১৫ জন সপ্তাহে অন্তত একদিন অফিসে একটা ‘নাতিদীর্ঘ’ ঘুম দিয়ে ফেলেন!

অনেক নামী প্রতিষ্ঠানে অবশ্য অফিসে কাজের ফাঁকে ঘুমানোর বিষয়টিকে ‘অপরাধ’ বলে ধরা হয় না। তারা বরং মনে করে, একপ্রস্থ ঘুম কর্মীদের কাজে মন বসাতে সাহায্য করবে, কর্মক্ষমতা বাড়াবে। এ নিয়ে গবেষণাও হচ্ছে। কোনো কোনো প্রতিষ্ঠান কর্মক্ষেত্রে ‘ঘুমবান্ধব’ পরিবেশ গড়ে তুলেছে। গুগল, নাইকিসহ বেশ কিছু নামী কোম্পানির অফিসে ঘুমঘর আছে। যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান নাসাও কর্মীদের ঘুমের ওপর বেশ গুরুত্ব দিয়েছে। তাদের গবেষণা অনুযায়ী, কাজের ফাঁকে ২৬ মিনিটের একটা ঘুম কর্মক্ষমতা শতকরা ৩৪ ভাগ বাড়ায়। এর মাধ্যমে কাজে সতর্কতা বৃদ্ধি পায় শতকরা ৫৪ ভাগ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here